বিজ্ঞপ্তি
জরুরী ভিত্তিতে সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ. দেশের জনপ্রিয়  voiceofchandpur.com অনলাইন নিউজ-এ জরুরী ভিত্তিতে বাংলাদেশের প্রতিটি থানায়. একজন থানা প্রতিনিধি ও প্রতি জেলায় একজন জেলা প্রতিনিধি  নিয়োগ দেওয়া হবে। 
চাঁদপুর-৩ আসনে সুজিত রায় নন্দীর মতো  ত্যাগী নেতার বিকল্প নেই

চাঁদপুর-৩ আসনে সুজিত রায় নন্দীর মতো  ত্যাগী নেতার বিকল্প নেই

ছবিঃ সুজিত রায় নন্দী

 

ভয়েস অব চাঁদপুরঃ

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁদপুর-৩ অাসনটি  রাজনৈতিক কৌশলগত কারনে ক্ষমতাসীন অাওয়ামীলীগ এবং অন্যান্য বিরোধী দলগুলোর কাছে খুবই গুরুত্বপূরপূর্ন।চাঁদপুর-৩  অাসনের বর্তমান  সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ক্ষমতাসীন দলের সংসদ সদস্য ডা. দীপু মনি এমপি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই অাসনে ক্ষমতাসীন অাওয়ামীলীগের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠে সরব রয়েছেন। বর্তমান সংসদ সদস্য ডাঃ দীপু মনি এমপির চেয়ে বেশি অালোচিত হচ্ছেন বাংলাদেশ  আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ  সম্পাদক, সাবেক ছাত্রনেতা বাবু সুজিত রায় নন্দী। তিনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে  চাঁদপুর-৩ আসনে বাংলাদেশ অাওয়ামীগের প্রার্থী হতে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। দলীয় মনোনয়ন ফরমও তুলেছেন। সাবেক এই ছাত্রনেতা দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে নির্বাচনী অাসনের বিভিন্ন এলাকায় নিয়মিত গণসংযোগ করছেন।

 

সুজিত রায় নন্দীর  রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে তিনি ছাত্রলীগ এবং বাংলাদেশ অাওয়ামীগের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি ছাত্রলীগের তৃনমূল পর্যায় থেকে রাজনীতি করে আসছেন।তিনি ছাত্র অবস্থা থেকেই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে  জড়িয়ে পরেন।

 

এই জনপ্রিয় নেতার রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়  ১৯৮৪ সালে  ৯নং বালিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার মধ্যদিয়ে।তিনি

১৯৮৬ সালে চাঁদপুর সরকারি কলেজের ছাত্রলীগের প্রার্থী হিসেবে ছাত্র সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহন করে, ১৯৮৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগণ্ণাথ হলের কার্যকরী কমিটির সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

তিনি ১৯৮৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক হিসাবে নির্বাচিত হন।

১৯৮৯-৯০ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগণ্ণাথ হল ছাত্র সংসদের এজিএস নির্বাচিত হন এবং পরবর্তীতে

জি এস হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৯০ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হন।

১৯৯২ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির

সহ-সম্পাদক নির্বাচিত হন।

১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের

শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হন।

১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন।

২০০১ সালে জাতীয় কাউন্সিল উপলক্ষে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান হিসাবে মনোনীত হন।

২০০৩ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহ-সম্পাদক নির্বাচিত হন।

২০০৯ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

২০১২ সালে পুনরায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন।

২০১৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনে ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

 

বাবু সুজিত রায় নন্দী কেন্দ্রীয় পদে থাকলেও সব সময় চাঁদপুরে জনগণের বিভিন্ন কল্যাণমূলক কাজের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন।বাংলাদেশ অাওয়ামীগের সকল কর্মসূচিতেই তার সরব উপস্থিতি ছিল।তার সাংগঠনিক দক্ষতার কারনে তিনি চাঁদপুর-৩ অাসনে দলের তৃনমূল এবং ত্যাগী নেতাদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয়।

সুজিত রায় নন্দী মনে করেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় নেতাকর্মীদের সমর্থন এবং সাধারণ মানুষের তার প্রতি সমর্থনের কথা মাথায় রেখে দলীয় সভানেত্রী চাঁদপুর-০৩ সংসদীয় অাসন থেকে  তাকেই দলীয় মনোনয়ন দিবেন।

এই গণমানুষের নেতাকে একাদশ সংসদ নির্বাচনে দল মনোনয়ন দিবে বলে প্রত্যাশা করেন চাঁদপুরবাসী।  চাঁদপুর শহরকে অাধুনিক এবং উন্নত শহরে পরিনত করতে হলে এবং নৌকার বিজয় ছিনিয়ে আনতে বাবু সুজিত রায় নন্দীর মতো জনপ্রিয়, ত্যাগী   এবং কর্মীবান্ধব নেতার বিকল্প নেই বলে মনে করে এলাকাবাসী।

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 voiceofchandpur.com
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET