চাঁদপুরে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক চক্রের সদস্য মিজানুর রহমান (২৮) কে বান্দারবান জেলার আলী কদম নামক স্থান থেকে আটক করেছে হাইমচর থানা পুলিশ।
.
আটক প্রতারক মিজানুর রহমান কক্সবাজার জেলার চকরিয়া পালাকাটা জোড় পুকুর পাড় এলাকার জমির হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় চাঁদপুর হাইমচর থানায় ১৯ মার্চ এস এম কবির বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। মামলা নং- ৮।
.
৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকালে সদর সার্কেল অফিসে প্রেস ব্রিফিং করে এ তথ্য জানান চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল জাহেদ পারভেজ চৌধুরী। মামলার বিবরনে জানা যায়, চাঁদপুর হাইমচর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এস এম কবিরের কাছ থেকে গত ১৪ মার্চ প্রতারক চক্রের সদস্যরা মুজিব বর্ষ উপলক্ষে দুস্থ ও অসহায় গরিব মানুষদেরকে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি হইতে আর্থিক অনুদান সহ বিভিন্ন সহযোগিতার নাম করে প্রত্যেককে ৪ হাজার ২শ টাকা ৩০ কেজি চাল,৫ কেজি ডাল,৫ কেজি তেল ও একটি কম্বল দিবে বলে বিকাশে প্রাথমিক ভাবে ৭টাকা পরবর্তিতে ৩০ হাজার ৮শ টাকা দিতে বলে।
.
বাদি ও বর্তমান হাইমচর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসেন সহ একাধিক লোকের কাছ থেকে প্রতারনা করে বিকাশের মাধ্যমে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকার আত্বসাৎ করে চক্রটি। আটক মিজানুর রহমান জানায়, বিকাশের দোকানে গিয়ে নগদ টাকা তুলে এনে সহযোগী বাবু ও নূরকে দিতো।
.
এ কাজের বিনিময় হিসেবে সে হাজারে ২শ টাকা করে পেত। কক্সবাজারের হোটেল সি পার্কে বসে তারা এই অপকর্ম চালাতো। নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের নাম্বার সংগ্রহ করে দিলে প্রতি নাম্বার প্রতি ১০০০ টাকা করে পেতো।
.
চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জাহেদ পারভেজ চৌধুরী জানান, বিভিন্ন জেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের টার্গেট করে বিভিন্ন সরকারি অনুদান দেওয়ার নাম করে বিকাশের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা তারা হাতিয়ে নিতো। আটক মিজানুর রহমান কমপক্ষে ১৫ থেকে ২০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তারা একটি সংঘবদ্ধ চক্র।