বিজ্ঞপ্তি
জরুরী ভিত্তিতে সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ. দেশের জনপ্রিয়  voiceofchandpur.com অনলাইন নিউজ-এ জরুরী ভিত্তিতে বাংলাদেশের প্রতিটি থানায়. একজন থানা প্রতিনিধি ও প্রতি জেলায় একজন জেলা প্রতিনিধি  নিয়োগ দেওয়া হবে। 
ফরিদগঞ্জে বন্ধ হয়ে গেছে দশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

ফরিদগঞ্জে বন্ধ হয়ে গেছে দশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

 

মামুন হোসাইনঃ

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে দেড় বছর বন্ধ থাকার পর রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) দেশের সব স্কুল ও কলেজ খুলেছে। কিন্তু চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার কমপক্ষে ১০টি কিন্ডারগার্টেন স্কুল আর খোলেনি।

বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন ফরিদগঞ্জ উপজেলা শাখা সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় মোট ৮২ টি কিন্ডারগার্টেন স্কুল ছিলো। ফরিদগঞ্জে ১০ টি স্কুল বন্ধ হয়ে গেছে। যেগুলো আর কখনও খুলবে না।

উপজেলার কিন্ডারগার্টেন স্কুলের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, করোনার বন্ধে বিভিন্ন ক্লাসের বহু শিক্ষার্থী কোনো না কোনো কাজে যুক্ত হয়েছে গেছেন। বেতন ভাতাদি না পেয়ে এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরাও চলে গেছেন অন্য পেশায়।

বন্ধ হয়ে যাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে দেইচর নবধারা শিশু একাডেমী, সাচনমেঘ আল গাজ্জালী কেজি স্কুল, হলি মিশন একাডেমী, হলি চাইল্ড একাডেমী, আদর্শ শিশু কানন, খানজাহান একাডেমী প্রমুখ।

বন্ধ হয়ে যাওয়া একটি স্কুল হলি মিশন একাডেমির প্রধান শিক্ষক মো. জসিম উদ্দিন জানান, করোনার আগে ১৩০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে স্কুলে ক্লাস চলছিলো। শিক্ষক ছিলেন ৮ জন। স্কুলের ভাড়াসহ যাবতীয় খরচ চালানো আমাদের মুশকিল হয়ে পড়ে। তার জন্যে স্কুলটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা সদরের হলি চাইল্ড একাডেমীর পরিচালক সাবেক পৌর কাউন্সিলর মজিবুর রহমান জানান, করোনার পুর্বে আমাদের প্রতিষ্ঠানটি ভালই চলছিল। কিন্তু করোনা কালিন সময়ে আমরা শিক্ষকদের কোন বেতন দিতে না পারায় , তারা চলে গেছে। ফলে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছি।

কয়েকজন অভিভাবকের সাথে কথা বললে তারা জানান আমরা চিন্তিত স্কুল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আমরা কোথায় ভর্তি করাবো আমাদের বাচ্চাদের, বিভিন্ন সরকারি স্কুলে খোঁজ নিয়ে দেখে বর্তমানে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কক্ষ সংকট, কোন স্কুলে ২ টি কক্ষের বেশি নেই,এক কক্ষ ৫ম শ্রেণি অন্য কক্ষ অন্য ক্লাসের শ্রেণি কার্যক্রম চালাতে কষ্ট হয়। ককারণ বর্তমানে এক বেঞ্চে ১ জনের বেশি ছাত্রছাত্রী বসানো যায়না। এমনতো অবস্হায় আমরা কি করবো,বাচ্চাদের নিয়ে আমরা খুব চিন্তিত আছি।

অপর দিকে সদরে অবস্থিত বর্ণমালা কিন্ডারগার্টেনের পরিচালক মামুন হোসাইন বলেন, গত বছর ১৭ মাস থেকে সারা বাংলাদেশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়। করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে ১৭ মাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায়,প্রতিষ্ঠানের মালিকরা জায়গা ভাড়া,শিক্ষকদের বেতন,কর্মচারির বেতন,বিদ্যুৎ বিলসহ নানা রকমের ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমি ফরিদগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার শিউলি হরির আন্তরিকতায় কিন্ডারগার্টেনের ৩০ জন শিক্ষককে সহযোগীতা করতে পেরেছি।

বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন অ্যাসোসিয়েশন ফরিদগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি রেজাউল করিম মাসুদ জানান, সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী ১০টি মতো প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে।

বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন অ্যাসোসিয়েশন চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি ওমর ফারুক বলেন, এই স্কুলগুলো চলে ব্যক্তি মালিকানায়। বেশিরভাগ স্কুলই ভাড়া ভবনে। ভাড়া দিতে না পারায় ভবন ছেড়ে দিতে হয়েছে। আর শিক্ষকরাও যে যেদিকে পেরেছেন, চলে গেছেন। আরও বেশকিছু স্কুল বন্ধের পথে রয়েছে।

ফরিদগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার জানান, এই পর্যন্ত ৭টি কিন্ডারগার্টেন ডিআর অনুযায়ী তালিকা জমা দেয় নি। তবে কিন্ডারগার্টেন অ্যাসোসিয়েশন কয়টি প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়েছে, তারা তা বলতে পারবে।

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 voiceofchandpur.com
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET