বিজ্ঞপ্তি
জরুরী ভিত্তিতে সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ. দেশের জনপ্রিয়  voiceofchandpur.com অনলাইন নিউজ-এ জরুরী ভিত্তিতে বাংলাদেশের প্রতিটি থানায়. একজন থানা প্রতিনিধি ও প্রতি জেলায় একজন জেলা প্রতিনিধি  নিয়োগ দেওয়া হবে। 
সংবাদ শিরোনাম
টিকটক দেখতে না দেয়ায় ফরিদগঞ্জে ভাইয়ের সাথে অভিমান করে বোনের আত্মহত্যার চেষ্টা মেধাবী ছাত্রদের পড়ালেখার পাশাপাশি সামাজিক কাজ করা প্রয়োজন-জনাব মাসুদ মিজি (মামুন)। তিন বছরেও শুরু হয়নি ফরিদগঞ্জ গাজীপুর মাদ্রাসার চারতলা ভবনের  কাজ ফরিদগঞ্জ হাঁসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নানা অভিযোগের ভিত্তিতে কর্মচারি নিয়োগ পরীক্ষা স্হগিত অর্থ আত্মসাতের মামলা : মোয়াজ্জেম হোসেনকে আত্মসমর্পনের নির্দেশ বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে আগুন, ২০ মিনিটে নিয়ন্ত্রণে হাইমচরে কৃষকদের মাঝে জীবাণুসার ও কৃষি উপকরণ বিতরণ বিপিএল ম্যাচ চলাকালীন মাহমুদউল্লাহর নামাজ আদায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য ১১ দফা নির্দেশনা বিশ্ব দরবারে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে পুলিশ : প্রধানমন্ত্রী
‘বাংলাদেশের সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য নিয়ে থাইল্যান্ডের আগ্রহ আছে’

‘বাংলাদেশের সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য নিয়ে থাইল্যান্ডের আগ্রহ আছে’

বাংলাদেশের সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য চুক্তি বিষয়ে থাইল্যান্ডের ইতিবাচক আগ্রহ আছে বলে জানিয়েছেন থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত মাকাওয়াদে সুমিতমোর। এ ছাড়া বাংলাদেশী পণ্যের বিক্রি বাড়াতে কাজ করবেন তারা। আজ মঙ্গলবার সকালে বাংলাদেশের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এ আগ্রহের কথা প্রকাশ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু, সহ-সভাপতি মো. হাবীব উল্লাহ ডন এবং মহাসচিব মোহাম্মদ মাহফুজুল হক।

থাই রাষ্ট্রদূত বলেন, পণ্যের ব্র্যান্ডিং করা গেলে, দেশটিতে বাংলাদেশী পন্যের ব্যাপক চাহিদা তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, চামড়াজাত পণ্য, ও মাছ রপ্তানির বিশাল সুযোগ রয়েছে। এ সময় এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ হবার পর, বিশ্ববাজারে বেশকিছু বাজার সুবিধা হারাবে বাংলাদেশ। তাই ২০২৬ পরবর্তী সময়ে অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য এফটিএ বা পিটিএ অপরিহার্য হবে। তবে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি করার আগে সংশ্লিষ্ট দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ভারসাম্য প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

দুইদেশের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য দীর্ঘদিন ধরেই থাইল্যান্ডের অনুকূলে রয়েছে। এসময় তিনি থাই বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশের বিনিয়োগের আহ্বান জানান। বিশেষ করে কৃষি প্রক্রিয়াজাত শিল্পে থাই বিনিয়োগ লাভজনক হতে পারে। একই সাথে চীন, জাপান, কোরিয়া ও ভারতের উদাহরণ দিয়ে বলেন, অনেক দেশই তাদের নিজেদের ব্যবসায়ীদের জন্য আলাদা অর্থনৈতিক অঞ্চল নিয়েছে। থাইল্যান্ডও চাইলে এমন পদক্ষেপ নিতে পারে। এছাড়াও থাইল্যান্ডে বাংলাদেশী পণ্যের বাজার বাড়াতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়ার আহ্বান জানান এফবিসিসিআই সভাপতি।

এ সময় দেশটিতে রোড শো আয়োজন এবং যৌথ ওয়ার্কিং  প্রুপ গঠনের প্রস্তাব দেন এফবিসিসিআই’র সহ-সভাপতি এম এ মোমেন। ব্যাংকক ও ঢাকার মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর উদযাপনের অংশ হিসেবে আগামী বছর বাংলাদেশ সফরে আসবেন দেশটির উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং বাণিজ্য মন্ত্রী।

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 voiceofchandpur.com
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET