বিজ্ঞপ্তি
জরুরী ভিত্তিতে সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ. দেশের জনপ্রিয়  voiceofchandpur.com অনলাইন নিউজ-এ জরুরী ভিত্তিতে বাংলাদেশের প্রতিটি থানায়. একজন থানা প্রতিনিধি ও প্রতি জেলায় একজন জেলা প্রতিনিধি  নিয়োগ দেওয়া হবে। 
সংবাদ শিরোনাম
বাবারা কি এমন হয়?

বাবারা কি এমন হয়?

লুৎফর রহমান দুই সন্তানের জনক। পেশায় একজন মোটরগাড়ি শ্রমিক। তিনি মির্জাপুর পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের শ্রীহরিপাড়া গ্রামের ইন্তাজ আলীর ছেলে। তিনি নিয়মিত মাদক সেবন করেন। স্ত্রীর কাছে চাহিদামত টাকা না পেয়ে কখনো স্ত্রীকে, কখনো সন্তানদের মারপিট করে আহত করেন। আবার কখনো দা দিয়ে ঘরের বেড়া কেটে ও ঘরের আসবাবপত্র নষ্ট করেন।

নিজেদের বাঁচাতে এমন অভিযোগ নিয়ে বুধবার (১৬ জুন) বিকেলে মাদকাসক্ত লুৎফরের স্ত্রী সন্তানরা আসেন মির্জাপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ে। সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন তাদের অভিযোগ শুনে শ্রীহরিপাড়া গ্রামের বাড়িতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালান। এসময় বিচারক জুবায়ের হোসেন অভিযুক্ত লুৎফর রহমানের কাছে মাদক সেবন ও নির্যাতনের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তাকে ৬ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

‘উপজেলা ভূমি অফিস মির্জাপুর’ ফেসবুক পেজে ‘দুই সন্তানের বাবা তিনি। অথচ মাদক সেবন করেন। হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে কখনো স্ত্রীকে মারধর করেন, কখনো ছেলে মেয়েকে মারেন আবার কখনো দা দিয়ে কেটে ঘরের জিনিসপত্র নষ্ট করেন। ‘বাবারা কি এমন হয়? কখনো নয়। দায়ী একমাত্র মাদক, আমরা সমাজ থেকে মাদকের অবসান চাই’ এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে। এই পেজে লেখাটি দেখে সচেতন ব্যক্তিরা সহকারি কমিশনার (ভূমি) কে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

মির্জাপুর পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আনোয়ার হোসেন জানান, লুৎফর একজন মাদক সেবনকারী। স্ত্রী সন্তানদের নির্যাতনের পাশাপাশি বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজের সাথে জড়িত। এর আগে কয়েকবার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠায়।

লুৎফর রহমানের স্ত্রী রেহেনা বেগম বলেন, তার স্বামী নিয়মিত মাদক সেবন করে। তার চাহিদামত টাকা দিতে না পারলে আমাকে ও সন্তানদের মারপিট করে। গলায় দা ধরে। আমি সন্তানদের নিয়ে বেঁচে থাকতে চাই। ছেলে তারেক রহমান দশম ও মেয়ে তাবাচ্ছুম আক্তার তুয়া দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। স্বামীর অত্যাচার-নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে গিয়েছিলাম। ম্যাজিস্ট্রেট তাকে ৬ মাসের সাজা দিয়েছেন।

মির্জাপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন জানান, লুৎফর রহমান মোটরগাড়ির শ্রমিক হলেও নিয়মিত মাদক সেবন করে। স্ত্রী সন্তানদের মারপিট ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটায়। স্ত্রী সন্তানদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বুধবার বিকেলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে তাকে ৬ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে বলে জানান।

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 voiceofchandpur.com
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET